Monday , April 19 2021

কালভার্ট হলেও চলাচল করতে হয় বাঁশের সাঁকো দিয়ে

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার সরকারি ডিগ্রি কলেজ টু বাইপাস সড়কে কালভার্ট নির্মাণ করেই যেন দায় সেরেছে কর্তৃপক্ষ। নির্মাণের দীর্ঘদিন পরও পারাপারের ব্যবস্থা না হওয়ায় স্থানীয়রা এর নাম দিয়েছেন ‘দায়সারা কালভার্ট’। তাদের দাবীর প্রেক্ষিতে এটি নির্মাণ হলেও, কালভার্টেই এখন অচল পথ। কোনভাবেই এ পথে এখন আর চলাচল করতে পারছেন না কেউ। এখানে দুুর্ঘটনার কবলে পড়ছেন অনেকেই।

সূত্র জানায়, বিশ্বনাথ সরকারি ডিগ্রি কলেজ টু বাইপাস সড়ক দিয়ে চলাচল করেন স্থানীয় দন্ডপানিপুুর, মহরমপুর, মিনারপাড়া, রাজাপুর, সরুয়ালা ও ভোগশাইলসহ বিভিন্ন গ্রামের জনসাধারণ। তাদের দাবীর প্রেক্ষিতে সরকারি অর্থায়নে প্রায় ৭ লাখ টাকা ব্যয়ে এ পথে কালভার্ট নির্মাণ শেষ হয় গত মে মাসের শেষ দিকে। নির্মাণ শেষে কালভার্টের দু’পাশে কোন মাটি ভরাট না করেই ফেলে রাখে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। এ কারণে স্থানীয়দের প্রত্যাশিত কালভার্টই এখন তাদের ‘গলার কাঁটা’। তারা কালভার্টের পাশ দিয়ে বাঁশের সাঁকো দিয়ে ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছেন। সম্প্রতি এখানে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে ছিটকে একটি পড়ে সিএনজি চালিত অটোরিকশা। ভেঙে যায় সাঁকোও।

স্থানীয় অটোচালক ইসলাম উদ্দিন বলেন, এ পথে কয়েক গ্রামের যাত্রী নিয়ে যাওয়া-আসা করি। এখন অনেক পথ ঘুরে আমাদের যেতে হয়।
দন্ডপানিপুর গ্রামের মুরব্বী ইলিয়াস আলী বলেন, কালভার্ট নির্মাণ হওয়ায় এলাকাবাসী খুশি। কিন্তু মাটি ভরাট করে চলাচলের উপযোগী না করায় এই দুর্ভোগ পোহাচ্ছি আমরা।

স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ছয়ফুল হক বলেন, জনসাধারণের কল্যাণেই এটি নির্মাণ করা হয়েছে। মাটি ভরাট করে চলাচলের উপযোগী করে দিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে একাধিক বার অবহিত করা হয়েছে।

এ বিষয়ে কথা হলে উপজেলা প্রকৌশলী আবু সাঈদ ‘বাংলাদেশ প্রতিদিন’কে বলেন, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও ঠিাকাদারের সাথে এ নিয়ে কথা হয়েছে। বৃষ্টি কমলেই হয়তো এ বিষয়ে একটা ব্যবস্থা নেয়া যাবে।

About Banglar Probaho

Check Also

ব্যাটিং কোচ হিসেবে লুইসকে পরখ করবে বিসিবি

বাংলাদেশের নতুন ব্যাটিং কোচ জন লুইস। ছবি : ডারহাম ক্রিকেট। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের জন্য প্রস্তুতি …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *