Thursday , July 18 2024
Breaking News

এক বছর না খেলার প্রতিশ্রুতিতে মেসিকে ছাড়তে রাজি বার্সা!

স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনার সাথে ২০ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করতে চান আর্জেন্টাইন সুপার স্টার লিওনেল মেসি। এ নিয়ে মেসি বনাম বার্সা দ্বন্দ্ব এখন বিশ্বফুটবলের অন্যতম সেরা খবর।

বার্সেলোনা ছেড়ে ম্যানচেস্টার সিটিতেই যাচ্ছেন লিওনেল মেসি-গত কয়েক দিনের খবরে এমনটা নিশ্চিতই ধরে নিয়েছিলেন ভক্ত-সমর্থকরা। এ নিয়ে অনেক জলঘোলা হলেও বার্সা-মেসি বিচ্ছেদ নাটকে সত্যিকারের কোনো অগ্রগতি নেই। ক্লাব ছাড়ার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়ার পর থেকে বার্সেলোনার সঙ্গে মেসির সম্পর্কে শুভ ফাটল ধরেছে। দুই পক্ষই নিজেদের দাবিতে অটল থাকতে দেখা গেছে।

বার্সার দাবি, মেসি ক্লাব ছাড়তে চাইলে তাকে বাই আউট ক্লজের পুরো ৭০ কোটি ইউরো ( বাংলাদেশি মূদ্রায় ৭০০০ কোটি টাকা) দিতে হবে। আর তার মানতে নারাজ মেসি। মেসির দাবি, শর্ত মেনেই এখন ফ্রি-ট্রান্সফারেই দল পরিবর্তন করতে পারবেন তিনি।
এ অচলাবস্থা নিরসনে এক নতুন শর্তে মেসির ফ্রি-ট্রান্সফারের দাবিটিই মেনে নিয়েছে বার্সেলোনা। এতে মেসিভক্তদের খুশি হওয়ার কথা থাকলে নতুন শর্তটি শুনলে সন্তুষ্টি মুহূর্তেই জেদে রূপ নেবে।

ইএসপিএন জানিয়েছে, মেসি ফ্রি-এজেন্ট হিসাবে বার্সা ছাড়তে পারবেন যদি আগামী মৌসুমে ফুটবল না খেলেন। অর্থাৎ পরের মৌসুমে মেসিকে কোনো খেলায় দেখা যাবে না। পাবেন না বেতন। এবং আগামী গ্রীষ্মের আগে তিনি কোনো দলে যোগ দিতে পারবেন না। এমন ভীষণ কঠিন শর্ত মানলেই ফ্রি-ট্রান্সফার মিলবে মেসির।

বার্সার এই শর্ত মেসির সঙ্গে তামাশাই মনে হচ্ছে ভক্তদের। কারণ আগামী মৌসুম শেষ হলে এমনিতেই মেসির সঙ্গে বার্সার বর্তমান চুক্তির মেয়াদ ফুরোবে। তখন এমনিতেই ফ্রি-ট্রান্সফারে অন্য ক্লাবে যেতে পারবেন মেসি।

এমন উদ্ভট প্রস্তাবে ক্ষিপ্ত হয়েই নাকি অনুশীলন বয়কটের সিদ্ধান্ত নেন মেসি। নিজেকে ফ্রি-এজেন্ট হিসেবেই দেখছেন এবং গত সোমবার ও মঙ্গলবার হাজির হননি বার্সার অনুশীলনে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে বার্সার সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করেন মেসি। যেখানে বলা হয়েছিল, প্রতি মৌসুম শেষে হওয়ার ২০ দিন আগে ক্লাব ছাড়ার ইচ্ছার কথা জানালে তিনি ফ্রি-ট্রান্সফারে যেতে পারবেন। বার্সা মতে, মেসি সেই সময় জুনে ফেলে এসেছেন। কিন্তু মেসি সেই ইচ্ছার কথা জানান আগস্টের শেষ দিকে এসে।

তাই মেসিকে এখন অন্য ক্লাবে যেতে হলে বাই আউট ক্লজের ৭০ কোটি ইউরো পরিশোধ করেই যেতে হবে। কিন্তু মেসি ও তার আইনজীবীর মতে, করোনার কারণে মৌসুম পিছিয়ে যাওয়ায় চুক্তির সেই সময়সীমা আগস্টেও ছিল। আর মেসি শর্তের বাইরে যাননি। তিনি এখন ফ্রি-এজেন্ট।

এমন পরিস্থিতিতে মেসির বাবার শরণাপন্ন হয়েছে বার্সেলোনা।

ইএসপিএন জানিয়েছে, এ মুহূর্তে মেসির সঙ্গে সব বিরোধ ভুলে তাকে দুই বছরের জন্য চুক্তি নবায়নের অনুরোধ করতে পারে ক্লাব বার্সেলোনা।

ইউরোপের গণমাধ্যগুলো বলছে, বার্সা প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আজ আলোচনায় বসতে পারেন মেসির বাবা হোর্হে মেসি। সহজ পথে মেসির বার্সা ছাড়ার ব্যাপারটা নিশ্চিত করার পক্ষে সিনিয়র মেসি। অন্যদিকে বার্সা প্রধানের টার্গেট, মেসিকে ধরে রাখা।

About Banglar Probaho

Check Also

আ.লীগ ও সহযোগীদের কাছে লোক চেয়েছে যুবলী

সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষ্যে আগামীকাল রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বড় জমায়েতের উদ্যোগ নিয়েছে যুবলীগ। রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি যখন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.